logo
ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২ সেপ্টেম্বর ২০২১

অজ্ঞান অবস্থায় আমার পর্ন ভিডিও ধারণ করেছিল: পরী

বিনোদন ডেস্ক
সেপ্টেম্বর ২, ২০২১ ২:৩৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পর্নকাণ্ডে বলিউডের অবস্থা টালমাটাল। অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রা গ্রেফতার হওয়ার পর থেকেই এক এক করে বেরিয়ে আসছে এই সংশ্লিষ্ট অভিযুক্ত ও ভুক্তভোগীদের নাম। বিস্ফোরক সব অভিযোগ আসছে প্রকাশ্যে। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হলেন প্রাক্তন মিস ইউনিভার্স ইন্ডিয়া পরী পাসওয়ান।

তিনি অভিযোগ করেছেন, বলিউডে কাজ করতে গিয়ে প্রতারিত হয়েছেন তিনি। পরী বলেন, ‘এক প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের অফিসে ডাকা হয়েছিল আমাকে। সেখানে কোমল পানিয়র সঙ্গে মাদক মিশিয়ে খাওয়ানো হয়। এরপর আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি। সেই অজ্ঞান অবস্থাতেই আমার পর্ন ভিডিও ধারন করা হয়। এবং সেটা ছড়িয়ে দেওয়া হয় অন্তর্জালে।’

পরী জানান, এই বিষয়ে মুম্বাইয়ের একটি থানায় অভিযোগও দায়ের করেছিলেন। কিন্তু তাতে কোনো ফল হয়নি।

ভারতের ধনবাদের বাসিন্দা পরী পাসওয়ান। ছোট বেলা থেকেই তার স্বপ্ন ছিল মডেলিং করার। গ্ল্যামার দুনিয়ায় ক্যারিয়ার গড়তে মুম্বাই পাড়ি জমিয়েছিলেন। ২০১৯ সালে তিনি মিস ইউনিভার্স ইন্ডিয়া খেতাব পেয়েছিলেন।

এরপরই নীরাজ পাসওয়ানের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন পরী। কিন্তু কিছু দিন যেতে না যেতেই শুরু হয় দাম্পত্য কলহ। শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে গার্হস্থ্য হিংসার অভিযোগ দায়ের করেন পরী। তার অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামী নীরাজকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপরই নীরাজের পরিবার আসল সত্য প্রকাশ্যে আনেন। তারা জানান, পরী আগেও দুটি বিয়ে করেছেন। তার ১২ বছর বয়সী একটি সন্তানও রয়েছে। এমনকি পর্ন ভিডিওতে কাজ করে আয় করেন বলেও জানায় নীরাজের পরিবার। এসব অভিযোগের পর পরী মুখ খোলেন এবং পর্ন ভিডিও প্রসঙ্গে তার অভিজ্ঞতার কথা জানান।

প্রসঙ্গত, শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে পর্ন ভিডিও বানানোর অভিযোগে গত ১৯ জুলাই গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর থেকে কয়েক দফায় তার জামিন আবেদন করা হলেও তা মেলেনি। এখনো পর্যন্ত তাকে কারাগারে রাখা হয়েছে।

 

দৈনিক বিবর্তন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।