logo
ঢাকাশুক্রবার , ১ অক্টোবর ২০২১

আমতলীতে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে হাজতে বৃদ্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক
অক্টোবর ১, ২০২১ ৮:২৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

বাবা-মাকে পান দেওয়ার কথা বলে পান বরজের ভেতরে ডেকে নিয়ে ৮ বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে ওই শিশু অসুস্থ হয়ে যায়। বৃহস্পতিবার পুলিশ অভিযুক্ত আব্দুর রশিদ হাওলাদারকে (৬৫) আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করে। আদালতের বিচারক মো. সাকিব হোসেন তাঁকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে শিশুটিকে জবানবন্দির জন্য আদালতে পাঠানো হয়। জবানবন্দি নেওয়ার পর আদালত অভিযুক্তকে জেলা হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গত বুধবার আমতলী উপজেলার এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর ভুক্তভোগীর বাবা অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ওই দিন রাতেই অভিযুক্তকে বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে।

জানা যায়, উপজেলার প্রথম শ্রেণিতে পড়া কন্যা শিশুটি দাদার বাড়িতে যায়। দাদার বাড়ি থেকে ফেরার পথে পান বরজের সামনে বৃদ্ধ আব্দুর রশিদ তাঁকে পথে আটকান। তার (শিশুটি) বাবা মাকে পান দেওয়ার কথা বলে বরজের পাশে একটি পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে যায় তিনি। ওই ঘরে নিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ চেষ্টা চালায় এবং শারীরিক নির্যাতন করেন। এ সময় শিশুটির চিৎকারে আব্দুর রশিদ পালিয়ে যান। পরে শিশুটিকে স্বজনেরা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখান থেকে চিকিৎসক শিশুটিকে পটুয়াখালীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

শিশুটির বাবা কান্নাজনিত কণ্ঠে বলেন, ‘আব্দুর রশিদ হাওলাদার আমার শিশু কন্যাকে পান দেওয়ার কথা বলে বরজের ভেতরে একটি পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা চালিয়েছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।’

এ দিকে শিশুটি অসুস্থ রয়েছে বলে জানান আমতলী থানার এসআই মোছা. নাসরিন। অন্যদিকে চিকিৎসক ডা. সুমন খন্দকার বলেন, শিশুটিকে দ্রুত পটুয়াখালী একটি বেসরকারি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত আব্দুর রশিদ হাওলাদারকে গ্রেপ্তার করে এবং শিশুটির জবানবন্দির জন্য আমতলী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানো হয়েছে।

দৈনিক বিবর্তন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।