logo
ঢাকাশনিবার , ১০ অক্টোবর ২০২০

এই ছোট্ট মিমকেও বাঁচতে দিল না ওরা!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | দৈনিক বিবর্তন.কম
অক্টোবর ১০, ২০২০ ৪:৩১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

স্কুলের গণ্ডিই এখন পার হয়নি মিম। এরই মাঝে বখাটে মনিরের কু-নজরে পড়েছে সে। পথে-ঘাটে স্কুলে যেতে আসতে সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে মীমকে উত্ত্যেক্ত করে। তার বিরুদ্ধে মামলা করেও রক্ষা পায়নি মীম। বখাটেদের শ্লীলতাহানির শিকার হয়ে অবশেষে আত্মহত্যার ভয়ংকর পথ বেছে নিয়েছে মীম। তার বাড়ি বরগুনা সদর উপজেলার পূর্ব বুড়িরচর। সে কদমতলা কিন্ডার গার্টেন স্কুলে ৮ম শ্রেণিতে পড়ত। এ ঘটনায় রাকিব, চুন্নু ও জহির নামে ৩ জনের বিরুদ্ধে বরগুনা থানায় মামলা করেছেন মিমের বাবা বেলাল গাজী।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে চাচার বাড়ির সামনে মনিরের ওই ৩ সহযোগী মীমের শ্লীলতাহানি করে। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হওয়ায় সে সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

বেলাল গাজী বলেন, আমার মেয়েকে বখাটে মনির বিভিন্ন সময় উত্ত্যক্ত করত। এ ব্যাপারে বরগুনা সদর থানায় ১৯ মে মনিরের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করি। পুলিশ অভিযোগপত্র দিলেও মনিরকে গ্রেফতার করতে পারেনি। মামলার পর থেকে মনিরের ভাই জহির ও ভাগ্নিজামাই চুন্নু মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি দিয়ে আসছে। মনির গ্রেফতার হলে আমার মেয়ের এমন পরিণতি হতো না। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

বরগুনা সদর থানার ওসি (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। অভিযুক্তদের আটক করার চেষ্টা চলছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

দৈনিক বিবর্তন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।