logo
ঢাকাশুক্রবার , ১৬ এপ্রিল ২০২১

বাসা-বাড়িতে কাজ দেয়ার প্রলোভনে তরুণীকে গণধর্ষণ

জেলা প্রতিনিধি | দৈনিক বিবর্তন
এপ্রিল ১৬, ২০২১ ৯:১৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বাসা-বাড়িতে কাজ দেয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে বগুড়ার শেরপুরে এক তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। শেরপুর উপজেলার বাগড়া হঠাৎপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এঘটনায় অভিযুক্ত মামুন প্রামাণিক (৩৫), সোহাগ সরকার (২২), আবদুল খালেক (৫০) নামে তিনজনকে আটকের পর পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা। এ ঘটনায় জড়িত অপর আসামি দুলু শেখ পলাতক রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। পরে ভিকটিম তরুণী বাদি হয়ে শেরপুর থানায় তিনজনের নামে ধর্ষণের মামলা করেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, বগুড়ার ধুনট উপজেলার ওই তরুণী বৃহস্পতিবার বিকালে বাসা-বাড়িতে কাজের সন্ধানে শেরপুর শহরে আসেন। কাজের সন্ধান না পেয়ে নিজ বাড়িতে ফিরে যাওয়ার জন্য ধুনটমোড় এলাকায় বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে সিএনজির জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন ওই তরুণী।

এ সময় শেরপুর উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়নের বাগড়া হঠাৎপাড়া গ্রামের আবদুস সামাদের ছেলে মামুন প্রামাণিক, আবুল শেখের ছেলে আবদুল খালেক ও পৌর শহরের সোহাগ সরকার ওই তরুণীর কাছে আসেন। তারা ওই তরুণীকে বাসা-বাড়িতে কাজ দেয়ার কথা বলে বাগড়া হঠাৎপাড়া গ্রামের আবদুস সাত্তারের পুকুরপাড়ে তাকে নিয়ে যায়।

সেখানে নিয়ে ওই তরুণীকে অভিযুক্ত চারজন মারধর ও ভয়ভীতি দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এসময় তরুণীর চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে অভিযুক্তরা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে লোকজন তাদের ধরে ফেলে। পরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়।

শেরপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, থানায় একটি গণধর্ষণ মামলা হয়েছে। আটক আসামিদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পলাতক আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

দৈনিক বিবর্তন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।