logo
ঢাকাসোমবার , ৯ নভেম্বর ২০২০

পঞ্চগড়ে প্রতিবেশীর লাথিতে চার মাসের অন্তঃসত্ত্বার গর্ভপাত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | দৈনিক বিবর্তন.কম
নভেম্বর ৯, ২০২০ ১:০১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পঞ্চগড় সদরে পূর্ব শত্রুতার জেরে নাজমা আক্তার নামে চার মাসের অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি মেরে গর্ভপাত করানোর অভিযোগ উঠেছে সায়বুর রহমান নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। তিনি ওই নারীর প্রতিবেশী।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই উপজেলার অরখানা ইউপির ঠুটাপাখুরি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত সায়বুর রহমান ওই এলাকার মোখলেছার রহমানের ছেলে।  শুক্রবার সায়বুরসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ভুক্তভোগীর স্বামী আমিনার রহমান।

রোববার স্থানীয় এক ব্যক্তির মোবাইল থেকে ওই অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি মারার ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, আমিনার রহমানের সঙ্গে সায়বুর রহমানের দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে আমিনারের চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী বাড়ির পাশে টিউবওয়েলের ড্রেন পরিষ্কার করতে গেলে সায়বুর ও তার বাড়ির লোকজন তাকে বাধা দেয়। এ নিয়ে কথা কাটকাটির এক পর্যায়ে সায়বুর ওই নারীকে মারধর এবং পেটে লাথি মারেন। সঙ্গে সঙ্গে তিনি অজ্ঞান হয়ে মাটিতে পড়ে যান এবং তা পেটে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। তাৎক্ষণিক উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নেয়ার পথেই তার গর্ভপাত হয়। পরে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফেরেন তিনি।

পঞ্চগড় সদর থানার ওসি (তদন্ত) মো. জামাল হোসেন জানান, প্রতিবেশীর লাথির আঘাতে ওই নারীর গর্ভপাতের ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

দৈনিক বিবর্তন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।