logo
ঢাকাশুক্রবার , ২ অক্টোবর ২০২০

সিলেট এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে ধর্ষণ : ৬ আসামির ডিএনএ সংগ্রহ

সিলেট প্রতিনিধি | দৈনিক বিবর্তন.কম
অক্টোবর ২, ২০২০ ৫:৩৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

সিলেটের এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে গৃহবধূ গণধর্ষণের ঘটনায় রিমান্ডে থাকা ছয় আসামির ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কড়া পুলিশ পাহারায় তাদের সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে স্থাপিত ডিএনএ ল্যাবের বিশেষজ্ঞরা আসামিদের ডিএনএ সংগ্রহ করেন। এরপর দুপুর দেড়টায় তাদের আবার থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

ডিএনএ নমুনা নেয়া আসামিরা হলেন- মামলার প্রধান আসামি সাইফুর রহমান, শাহ মাহবুবুর রহমান রনি, অর্জুন লস্কর, রবিউল ইসলাম, মামলার সন্দেহভাজন আসামি মিসবাউর রহমান রাজন ও আইনউদ্দিন। তারা সকলে ছাত্রলীগ কর্মী এবং বর্তমানে গ্রেপ্তার আটজনের সবাই পাঁচদিনের পুলিশ রিমান্ডে আছেন।

এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাশু লাল রায় বলেন, এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গণধর্ষণ মামলার ছয় আসামিকে হাসপাতালের নিচতলায় ডিএনএ ল্যাবে আনা হয়। পরে তাদের প্রয়োজনীয় ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করেন ল্যাবের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তারা।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশের (গণমাধ্যম) জ্যোতির্ময় সরকার বলেন, তারেকুল ইসলাম তারেক ও মাহফুজুর রহমান মাসুম ছাড়া গ্রেপ্তার অপর ছয়জনের ডিএনএ নমুনা পরীক্ষার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে নেয়া হয়। সেখানে নমুনা সংগ্রহ করার পর তাদের পুলিশের হেফাজতে আনা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার এমসি কলেজে স্বামীকে বেঁধে রেখে নববধূ তরুণীকে গণধর্ষণ করে ছাত্রলীগের ৬ নেতাকর্মী। এ ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদী হয়ে সিলেটের শাহপরান থানায় মামলা করেন। মামলায় ছাত্রলীগের ছয় নেতাকর্মীসহ অজ্ঞাত আরও তিনজনকে আসামি করা হয়।

এ ঘটনায় পুলিশ আটজনকে গ্রেপ্তার করেছে। সবাই ৫ দিনের রিমান্ডে রয়েছে।

দৈনিক বিবর্তন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।