1. [email protected] : dailybibartan :
  2. [email protected] : Boni Amin : Boni Amin
ধর্ষিতার অভিনয়ে আপত্তিকর সংলাপ, স্পর্শিয়াকে খুঁজছে পুলিশ!
বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৮:৪১ অপরাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি:
সারাদেশে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে সরাসরি যোগাযোগ করুন : 01714218173 email: [email protected]

ধর্ষিতার অভিনয়ে আপত্তিকর সংলাপ, স্পর্শিয়াকে খুঁজছে পুলিশ!

বিনোদন ডেস্ক | দৈনিক বিবর্তন
  • নিউজ প্রকাশ: শনিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ২২৬ বার
স্পর্শিয়া
নিউজটি শেয়ার করুন..
  • 3
    Shares

মুক্তির অপেক্ষায় থাকা ‘নবাব এলএলবি’ চলচ্চিত্রে ধর্ষিত তরুণীর অভিনয় করেছেন মডেল অভিনেত্রী অর্চিতা স্পর্শিয়া। বিচার চাইতে গিয়ে একটি দৃশ্যে পুলিশকে হেয় করে সংলাপ উপস্থাপন করার অভিযোগ উঠেছে। এঘটনার পর থেকে স্পর্শিয়াকে খুঁজছে পুলিশ।

একই সঙ্গে গ্রেফতারের পর কারাগারে পাঠানো হয়েছে চলচ্চিত্রটির পরিচালক ও এক অভিনেতাকে। তারা হলেন, পরিচালক অনন্য মামুন ও অভিনেতা শাহীন মৃধা। বৃহস্পতিবার মধ্য রাতে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ রাজধানীর মিরপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে। শুক্রবার আদালতে নেওয়া হলে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বিচারক।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে ধর্ষণের শিকার এক নারী থানায় পুলিশের কাছে গিয়ে অভিযোগ করলে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রশ্নোত্তর দেখানো হয়েছে। সেখানে ধর্ষণের বর্ণনা ও জিজ্ঞাসাবাদ অত্যন্ত আপত্তিকর ভাষায় করা হয়েছে। যা সুস্থ বিনোদনের পরিপন্থী হওয়ায় পরিবার-পরিজনসহ একত্রে বসে দেখা সম্ভব নয় এবং যা জনসাধারণের মধ্যে পুলিশ সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা তৈরি করবে। এই ভিডিওটি বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর জন্য অত্যন্ত মানহানিকর এবং ভিডিওর মাধ্যমে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীকে জনসাধারণের সম্মুখে অত্যন্ত নেতিবাচকভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।’

নবাব এলএলবি চলচ্চিত্রটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, মাহিয়া মাহি, অর্চিতা স্পর্শিয়া, শহীদুজ্জামান সেলিম ও শাহীন মৃধা।

পুলিশ জানায়, ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের পরিদর্শক নাসিরুল আমিন বাদী হয়ে রমনা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় পরিচালক অনন্য মামুন, অভিনেতা শাহীন মৃধা ও চলচ্চিত্র নায়িকা স্পর্শিয়াসহ তিন জনের নাম উল্লেখ করে তাদের আসামি করা হয়েছে।

গোয়েন্দা পুলিশের সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার ফজলুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘নবাব এলএলবি চলচ্চিত্রটি আংশিকভাবে অনলাইনে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। এই চলচ্চিত্রের একটি দৃশ্যে ধর্ষণের শিকার হওয়া একজন নারীকে পুলিশ চরিত্রে অভিনয়কারী ব্যক্তি অশালীন ও আপত্তিকর ভাষায় প্রশ্ন করতে দেখা গেছে। এতে একদিকে যেমন পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে, তেমনি নারীর প্রতিও অবমাননা করা হয়েছে।


নিউজটি শেয়ার করুন..
  • 3
    Shares
এ জাতীয় আরো সংবাদ..

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন